ষষ্ঠ থেকে মাস্টার্স পর্যন্ত সকল শিক্ষার্থীরা উপবৃত্তি পাবেন 10 হাজার করে টাকা।

করোনার জন্য বাংলাদেশ সরকার প্রত্যেক

শিক্ষার্থীর দেরকে 10000 টাকা করে উপবৃত্তি দিচ্ছে। ষষ্ঠ থেকে মাস্টার্স পর্যন্ত সকলশি ক্ষার্থীরা এই উপবৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন।



যার সময়সীমা ছিল 11 ফেব্রুয়ারি থেকে 28 শে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত কিন্তু এখনই সময় সীমা বাড়িয়ে 7 ই মার্চ পর্যন্ত করা হয়েছে।


❤️❤️ মোবাইল দিয়ে আবেদন করার জন্য নিচের ভিডিওটি দেখুন

👉আবেদন করতে পারবেঃ ৬ষ্ঠ শ্রেণি থেকে শুরু করে স্নাতক বা সমমান পর্যায়ে সকল শিক্ষার্থীরা।

👉 আবেদনের সময়সীমাঃ ০৭ মার্চ ২০২১ পর্যন্ত।

 ★ ছাত্র-ছাত্রীদের আর্থিক অনুদানের অনলাইন আবেদন করার লিংকঃ👇👇 https://eksheba.gov.bd/service/?id=BDGS-1611115830




***প্রয়োজনীয় কাগজপত্রঃ****

১/ বর্তমানে যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত আছেন সেখান থেকে প্রতিষ্ঠান প্রধান/ বিভাগীয় প্রধানের স্বাক্ষরিত প্রত্যয়ন পত্র।

২/ নিজের আইডি কার্ড/ জন্ম নিবন্ধন সনদের নম্বর।

৩/ পিতা ও মাতার জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর

৪/ ইমেইল এড্রেস

৫/ সচল মোবাইল নম্বর (অবশ্যই নগদ একাউন্ট সচল থাকতে হবে! নাহ থাকলে,খুলে নিবেন)


🔥🔥 আবেদন ফরম পূরণের নিয়মাবলীঃ🔥🔥

👉আবেদন ফরমের লাল তারকা চিহ্নিত ঘরগুলো অবশ্যই পূরণ করুন। অন্যান্য ঘরগুলো পূরণ ঐচ্ছিক ।


 👉লিংক-এ প্রবেশ করে নিবন্ধন অপশনে ক্লিক করে সচল মোবাইল নম্বর ও পূর্ণ নাম দিয়ে নিবন্ধন সম্পূর্ন করুন। https://eksheba.gov.bd/service/?id=BDGS-1611115830 


👉 পরের ধাপে জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর / জন্ম নিবন্ধন সনদের অনলাইন নম্বর ও জন্ম তারিখ দিয়ে পরবর্তী ধাপে যান।

👉 এই ধাপে 'সহয়তা/ভাতা/অনুদান' অপশনে ক্লিক করে ৩৮ নং 'শিক্ষার্থীদের আর্থিক অনুদান' অপশনে ক্লিক করবেন।

👉 এরপরের ধাপে আপনার সকল তথ্য এবং প্রত্যয়নপত্র আপলোড করে আবেদন সম্পন্ন করতে পারবেন।

👉আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার পূর্বে প্রয়োজন হলে সংরক্ষণ করা যায় এবং পরবর্তীতে সেবা ব্যবস্থাপনা অপশন হতে ড্রাফট আবেদন পুনরায় শুরু করা যাবে।

👉 আবেদন দাখিলের পর প্রতিটি আবেদনের জন্য একটা স্বতন্ত্র ট্রাকিং নম্বর প্রদান করা হবে যেটা ব্যবহার করে সেবা ব্যবস্থাপনা অপশন হতে আবেদনের অগ্রগতি জানা যাবে।

👉 প্রত্যয়ন পত্র আপলোডের জন্য (সর্বোচ্চ ফাইলের আকার ১০ মেগাবাইট। অনুমোদিত ফাইল এক্সটেনশান সমূহ: gif, png, jpg, jpeg, pdf)

👉 সেবা প্রদানের সময়সীমা ১২০ কার্যদিবস। মোবাইল ব্যাংকিং(নগদ) পদ্ধতিতে অর্থ প্রদান করা হবে। স্নাতক/সমমান পর্যায়ে অনুমোদিত বাজেট এর উপর নির্ভর করে একজন শিক্ষার্থী প্রতি সর্বোচ্চ 10000/- টাকা মঞ্জুর করা যাবে।

JF Anika

যদি এই ওয়েবসাইটে লেখাগুলো ভালো লাগে তাহলে বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করবেন। এবং আমাদের পাশে থাকবেন। আল্লাহ আপনাদের সকলের মঙ্গল করুক। (আমিন)

Thanks for reading my writing, JF Anika.

ধন্যবাদ আমার লেখা গুলো পড়ার জন্য, জে.এফ আনিকা।

Post a Comment (0)
Previous Post Next Post